Login

Breadcrumbs

জগন্নাথ হল অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সাধারণ সভা ও ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত এবং নতুন কার্যনির্বাহী পরিষদ গঠিত

জগন্নাথ হল অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সাধারণ সভা ও ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে বিগত ৮ এপ্রিল ২০১৬, শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট ভবন অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি কানুতোষ মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সাধারণ সভা ও সম্মেলনে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অনুপম রায় বার্ষিক প্রতিবেদন এবং অর্থ সম্পাদক তপন কৃষ্ণ পোদ্দার আর্থিক প্রতিবেদন পেশ করেন। তাছাড়া জগন্নাথ হল অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের গঠনতন্ত্রের কতিপয় ধারা সংশোধনের উপর প্রস্তাব উপস্থাপন করেন বীরেন্দ্র নাথ অধিকারী।

সাধারণ সভা ও সম্মেলন প্রস্তুতি উপ-কমিটির সদস্য সচিব নির্মল কুমার চ্যাটার্জীর পরিচালনায় উক্ত সভায় সাংগঠনিক সম্পাদক ব্রজগোপাল দেবনাথ শোক প্রস্তাব উত্থাপন এবং দপ্তর সম্পাদক নির্মল কুমার মিরবর বিগত বার্ষিক সাধারণ সভার কার্যবিবরণী উপস্থাপন করেন।

খুলনা, বরিশাল, ফরিদপুর, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহের শাখা কমিটিগুলোসহ ঢাকা মহানগর থেকে আগত সাড়ে চার শতাধিক প্রতিনিধি অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সাধারণ সভা ও সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। সাধারণ সভা ও সম্মেলন প্রস্তুতি উপ-কমিটির আহ্বায়ক পান্নালাল দত্তসহ অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ডালেম চন্দ্র বর্মন, অধ্যাপক নিম চন্দ্র ভৌমিক, অসীম কুমার উকিল, স্বপন কুমার সাহা, মুকুল বোস, নিতাই রায় চৌধুরী, তপন কুমার বর্ধন, জগদীশ চন্দ্র বিশ্বাস, সঞ্জীব কুমার সাহা, রঞ্জন কর্মকার, জগদীশ চন্দ্র বিশ্বাস, শৈলেন্দ্র নাথ রায়, সুভাষ সিংহ রায়, সুজিত রায় নন্দী, ড. অসীম সরকার, পরেশ চন্দ্র শর্মা, সমরেন্দ্রনাথ রায়, মন্মথ রঞ্জন রাড়ৈ, শিবাজী দে, বিপুল কুমার সাহা, বিজয় কৃষ্ণ বনিক প্রমুখ। সাধারণ সভা ও সম্মেলন শেষে উক্ত অ্যাসোসিয়েশনের পরবর্তী মেয়াদের জন্য নতুন কমিটির নির্বাচন পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। জগন্নাথ হল অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান তপন চন্দ্র মজুমদার নির্বাচন পরিচালনা করেন। এ কাজে তাকে সহায়তা করেন কমিশনের অপর দুই সদস্য অ্যাডভোকেট তাপস কুমার পাল এবং সুভাশীষ বিশ্বাস সাধন। এতে বিগত ৬ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে অনুষ্ঠিত সংগঠনের বিষয় নির্ধারণী সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী দুই বছর (২০১৬-২০১৮) মেয়াদকালের জন্য সভাপতি হিসেবে পান্নালাল দত্ত এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে বীরেন্দ্র নাথ অধিকারীর নাম উত্থাপন করা হলে বিপুল করতালি ও কণ্ঠভোটে তাদের দুইজনকে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়। তাছাড়া, গঠনতন্ত্র মোতাবেক কার্যনির্বাহী পরিষদের ১০১ জন সদস্যের মধ্যে সম্মেলনে ৮১ জন্ সদস্য নির্বাচনের যে বিধান রয়েছে তা পালনের জন্য বিদায়ী সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং নবনির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের উপর দায়িত্ব অর্পণ করা হয়। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তারা সেই দায়িত্ব পালন করে নির্বাচন কমিশনের নিকট দাখিল করলে কমিশন নবনির্বাচিত ৮১ জন কার্যবির্বাহী পরিষদ সদস্যের তালিকা অ্যাসোসিয়েশনের সকল সদস্যের নিকট প্রেরণ করে।

বিগত ২০ মে ২০১৬ তারিখে অনুষ্ঠিত নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদের প্রথম সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক ১০১ জনের মধ্যে বাকি ২০ জন সদস্য এবং বিভিন্ন সহ-সম্পাদক পদে মনোনয়ন শেষে অ্যাসোসিয়েশনের ১০১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি প্রকাশ করা হয়েছে।
(কার্যনির্বাহী পরিষদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা’র লিংক-   http://jhaa.org.bd/executive-committee-2016-2018.html)

চিত্রে বার্ষিক সাধারণ সভা ও ত্রিবার্ষিক সম্মেলন